ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার হাওরবেষ্টিত অরুয়াইল বাজারে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল শেষে অরুয়াইল আবদুস সাত্তার ডিগ্রি কলেজ মাঠে সমাবেশ। এ সময় অনেকের হাতেই লাঠিসোঁঠা ছিল। আজ শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে তোলা ছবি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার হাওরবেষ্টিত অরুয়াইল বাজারে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল শেষে অরুয়াইল আবদুস সাত্তার ডিগ্রি কলেজ মাঠে সমাবেশ। এ সময় অনেকের হাতেই লাঠিসোঁঠা ছিল। আজ শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে তোলা ছবিপ্রথম আলো

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার প্রত্যন্ত হাওরবেষ্টিত অরুয়াইল পুলিশ ক্যাম্পে হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থকদের হামলায় অন্তত ২০ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আজ শনিবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে সরাইল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কবীর হোসেন রয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুড়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেলা দুইটার দিকে অরুয়াইল বাজারে মাওলানা আবু তাহের, হোসাইন আহমেদ, মাহমুদুর রশিদ ও অলিউল্লাহর নেতৃত্বে কয়েক হাজার মাদ্রাসাছাত্র-জনতা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। বেলা সাড়ে তিনটার দিকে তারা অরুয়াইল পুলিশ ক্যাম্পে হামলা চালায়। এ সময় অরুয়াইল ক্যাম্পে সরাইল থানার পুলিশ ছাড়াও আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) উপস্থিত ছিল। হামলাকারীরা ক্যাম্পের ভেতর প্রবেশের চেষ্টা চালায়। এ সময় পুলিশ বাধা দিলে হামলাকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। এতে পুলিশের অন্তত ২০ জন সদস্য আহত হন।

default-image

এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ১৪টি কাঁদানে গ্যাসের শেল ও ৪০টি রাবার বুলেট ছুড়ে। এতে হতাহতের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। বেলা দুইটার পর থেকে অরুয়াইল বাজারের সহস্রাধিক দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দোকানপাট খোলেনি।

বিজ্ঞাপন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (সরাইল সার্কেল) আনিছুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, অরুয়াইল পুলিশ ক্যাম্প রক্ষা ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে পুলিশ সদস্যরা ইটের আঘাতে আহত হয়েছেন। শেষ বিকেল থেকে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

default-image

এদিকে, আজ দুপুর ১২টার পর থেকে ঢাকা-সিলেট ও কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল কমতে থাকে। বিকেলে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দুপুর থেকে ঢাকা-সিলেট ও কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের সরাইল বিশ্বরোড মোড়ে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) আরিফুল হকের নেতৃত্বে বিপুল পরিমাণ বিজিবি, র‍্যাব ও পুলিশ অবস্থান নেয়।

সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে আরিফুল হক প্রথম আলোকে বলেন, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সরাইলের অংশে কোনো সমস্যা নেই। তবে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে বাধার কারণে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন