অসুস্থ সাংবাদিক বিষ্ণু প্রসাদকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়। 
আজ মঙ্গলবার সকালে শহরের শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়ামে
অসুস্থ সাংবাদিক বিষ্ণু প্রসাদকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়। আজ মঙ্গলবার সকালে শহরের শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়ামেপ্রথম আলো

নানা উপসর্গ নিয়ে বাগেরহাটের অসুস্থ সাংবাদিক বিষ্ণু প্রসাদ চক্রবর্তীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজধানী ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে শহরের শেখ হেলাল উদ্দিন স্টেডিয়াম (জেলা স্টেডিয়াম) থেকে একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে (হেলিকপ্টার) করে তাঁকে ঢাকায় নেওয়া হয়। সেখানে বিএসএমএমইউর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল তাঁর চিকিৎসা দেবেন।

বিষ্ণু প্রসাদ একাত্তর টেলিভিশন, বার্তা সংস্থা ইউএনবি এবং দৈনিক কালের কণ্ঠের বাগেরহাট প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তাঁর শারীরিক অসুস্থতার খবর জানতে পেরে বাগেরহাট-২ আসনের সাংসদ শেখ তন্ময় তাঁকে ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসার উদ্যোগ নেন বলে জানান বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন।

বিষ্ণু প্রসাদ চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে আবার বাগেরহাটে ফিরবেন, সেই শুভকামনা জানিয়েছেন কর্মরত সাংবাদিকেরা। তাঁকে বিএসএমএমইউতে নেওয়ার সময় বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. রিজাউল করিম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোছাব্বেরুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজয়া পারভীনসহ কর্মরত স্থানীয় সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক বিষ্ণু প্রসাদের শারীরিক অসুস্থতার খবর জানতে পেরে বাগেরহাট-২ আসনের সাংসদ শেখ তন্ময় তাঁকে ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসার উদ্যোগ নেন।
বিজ্ঞাপন

গত ৭ ফেব্রুয়ারি বাগেরহাট সদর হাসপাতালে করোনাভাইরাসের টিকা নেন বিষ্ণু চক্রবর্তী। এরপর থেকে শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। বাগেরহাটের স্বাস্থ্য বিভাগ প্রথমে তাঁকে তত্ত্বাবধানে নিয়ে চিকিৎসা শুরু করে। মেডিকেল টিম গঠন করে নানা পরীক্ষা–নিরীক্ষা করেও কোনো রোগের সন্ধান পায়নি। সেই থেকে তাঁকে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেখে তাঁর চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছে। গত রোববার মেডিকেল টিম তাঁর উন্নত চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউতে নেওয়ার সুপারিশ করে।

default-image

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন কে এম হুমায়ূন কবির সাংবাদিকদের বলেন, ‘গত ৭ ফেব্রুয়ারি করোনার টিকা গ্রহণের পর সাংবাদিক বিষ্ণু প্রসাদ চক্রবর্তী শারীরিকভাবে অসুস্থ বোধ করার কথা জানান। এরপর আমরা তাঁকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা শুরু করি। এখানে মেডিকেল টিম গঠন করে তাঁর নানা পরীক্ষা–নিরীক্ষা হয়। তাঁর কোনো রোগ ধরা না পড়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজে পাঠাই। সেখানের পরীক্ষায়ও তাঁর শরীরে কোনো রোগ শনাক্ত হয়নি। তাঁর শারীরিক দুর্বলতা ছাড়া তেমন কোনো সমস্যা মেডিকেল টিম পায়নি। উন্নত চিকিৎসা জন্য বিএসএমএমইউতে তাঁকে রেফার করা হয়েছে। সেখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল তাঁর উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন