সিপিবি নেতা জয়নাল আবেদীন খানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফি, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সংগঠক ও কুমিল্লা জেলা কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক পরেশ কর, সিপিবি নেতা পরেশ কর, বিকাশ দেব, জাসদ বুড়িচং উপজেলা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ আহমেদ, সাংবাদিক মহিউদ্দিনের নানা বাবুল হোসেন, বুড়িচং উপজেলা কমিটির সম্পাদক গণেশ ভট্টাচার্য্য প্রমুখ।

আবদুল্লাহ ক্বাফি বলেন, ‘কুমিল্লার বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া সীমান্ত এলাকায় দীর্ঘদিন থেকে মাদকের কারবার চলছে। সীমান্ত দিয়ে এ এলাকায় মাদক দিয়ে ঢুকে। রাজনৈতিক প্রভাবপুষ্ট গডফাদারদের প্রত্যক্ষ মদদে মাদক চোরাচালান হয়। সাংবাদিক মহিউদ্দিন মাদক কারবারিদের নিয়ে সোচ্চার হওয়ায় তাঁকে প্রাণ দিতে হলো। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই। একই সঙ্গে পরিবারটিকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

সমাবেশ শেষে আবদুল্লাহ ক্বাফির নেতৃত্বে শংকচাইল থেকে হায়দ্রাবাদ অভিমুখে পদযাত্রা করেন সিপিবির নেতা–কর্মীরা। এতে স্থানীয় নেতারা অংশ নেন।

১৩ এপ্রিল রাতে সাংবাদিক মহিউদ্দিনকে শংকুচাইলসংলগ্ন হায়দারাবাদনগর এলাকায় গুলি করে হত্যা করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, মহিউদ্দিনকে মাদক কারবারিরা তথ্য দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে হত্যা করে। মহিউদ্দিন বুড়িচং উপজেলার কুমিল্লার ডাক পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক ছিলেন। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাদকের বিরুদ্ধে লেখালেখি করতেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন