বিজ্ঞাপন

বর্তমান অবস্থায় মুক্ত সাংবাদিকতা সম্ভব নয় দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, রোজিনা ইসলামের ঘটনা প্রমাণ করেছে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা একেবারেই নেই। রোজিনা ইসলামের ওপরে শারীরিক-মানসিক নির্যাতন করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। কারাগারের মধ্যেও তাঁকে সাধারণ কয়েদিদের সঙ্গেই রাখা হয়েছে। এটা থেকে প্রামাণিত হয় সরকার রাজনৈতিক সরকার নয়। এ সরকার পুরোপুরিভাবে আমলাতান্ত্রিক সরকার। এখন আমলারাই পলিসি নির্ধারণ করেন। তাঁরাই দেশকে একটা চরম অবস্থার দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। সংবাদকর্মীরা যেন সত্য ঘটনা প্রকাশ করতে না পারেন, বিশেষ করে চুরি-দুর্নীতির ঘটনা যেন প্রকাশ না হয়, সে কারণে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। বর্তমান সরকার সাংবাদিক দলন-নিপীড়নসহ মানুষের অধিকার হরণ করেই ক্ষমতায় টিকে থাকতে চাচ্ছে।

মতবিনিময়ের সময় জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সাংসদ জাহিদুর রহমান, জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি আবদুল হালিম, জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক শরিফুল ইসলামসহ বিএনপির নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন