বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বড়াইগ্রামের দিয়ারগারফা গ্রামের মৃত আফসার আলী মোল্লার ছেলে সারোয়ার উদ্দিনের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দিয়ারগারফা গ্রামে জিন্নাহ ফাউন্ডেশন কার্যালয়ে আয়োজিত এক সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী বক্তব্য দিয়েছেন। এ সময় উপস্থিত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘২৭ অক্টোবর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দের পর সাংসদ এই এলাকায় এলে তাঁর গাড়ি ভাঙচুর করবেন। এর দায়দায়িত্ব আমার।’ এই বক্তব্য দেওয়ার পর এলাকায় নেতা-কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এতে শান্তিশৃঙ্খলা ভঙ্গ হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, জিডির বিষয়ে আদালতের অনুমতি নিয়ে তদন্ত করা হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাংসদ আবদুল কুদ্দুস বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানের বক্তব্যের বিষয়ে তাঁরা বর্ধিত সভা ডেকে দলীয় সিদ্ধান্ত নেবেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, ‘জিডির বিষয়টি তিনি শুনেছেন। তবে যিনি জিডি করেছেন, তিনি আওয়ামী লীগের কেউ নন। তিনি আমার বক্তব্য না বুঝে জিডি করেছেন। আমি অপরাধমূলক মনোভাব নিয়ে গাড়ি ভাঙচুরের কথা বলিনি। এটি নিছক রাজনৈতিক বক্তব্য।’

সিদ্দিকুর রহমান আরও বলেন, গত ইউপি নির্বাচনে সাংসদ আবদুল কুদ্দুস নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়েছেন। বিষয়টি সবাই জানেন। এ নিয়ে এলাকায় তীব্র অসন্তোষ রয়েছে। তাই এবার যেন সাংসদ নৌকার বিপক্ষে না যান, সে জন্য তাঁকে সতর্ক করা হয়েছে মাত্র।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন