default-image

চুয়াডাঙ্গায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের তিন নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সদর থানা–পুলিশের একটি দল গতকাল বুধবার রাতে চুয়াডাঙ্গা শহরের বড়বাজার শহীদ হাসান চত্বর থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করে।

সাংসদ ও চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দারের একটি বক্তব্য ফেসবুকে বিকৃত করে পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা হয়। জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সাহাবুল হোসেন বাদী হয়ে গত বছরের ১৮ আগস্ট সদর থানায় মামলাটি করেন।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ইমরান আহমেদ (৩২), ৫ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তাওরাত (২৬) ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ দিশান (২৪)। এই তিনজনই এই মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি।

জেলা ছাত্রলীগ নেতা সাহাবুল হোসেনের করা মামলায় এই তিনজন ছাড়াও রকিবুল ইসলাম নিপ্পন, মিজানুর রহমান, ফারহান রাব্বি ও আফরিন সজীবের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ৩০ থেকে ৪০ জনকে আসামি করা হয়। আসামিদের বেশির ভাগই স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী। তাঁরা সাবেক পৌর মেয়র ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক ওবায়দুর রহমান চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ভবতোষ রায় বলেন, জানুয়ারি মাসে মামলাটির অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে। গ্রেপ্তার তিনজনই অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি। তাঁদের আজ বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন