বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, পূর্ব বাকলিয়ায় আবদুল লতিফ হাটখোলা এলাকায় বড় মৌলভি বাড়িসংলগ্ন একটি কবরস্থান রয়েছে। এটি লোকজনের কাছে বড় মৌলভি কবরস্থান নামে পরিচিত। বড় মৌলভি বাড়ির লোকজনের দাবি, এটা তাঁদের পূর্বপুরুষের দেওয়া নিজস্ব কবরস্থান। সকালে ওই বাড়ির লোকজন এবং প্রতিবেশীরা মিলে সেখানে সাইনবোর্ড লাগাতে যান। তখন পাশের ইয়াকুব আলীর বাড়ি ও তাঁদের লোকজন গিয়ে বাধা দেন। ওই পক্ষের দাবি, এটা ১০০ বছর ধরে স্থানীয়দের সম্মিলিত সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে, কারও পৈতৃক সম্পত্তি নয়। বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় দুই পক্ষের তিন থেকে চারজনের হাতে পিস্তল দেখা গেছে। বেশির ভাগেরই হাতে ছিল ইটপাটকেল ও লাঠিসোঁটা।

বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুহুল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনায় ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

ওসি আরও বলেন, ছররা গুলিতে আহত ব্যক্তিরা এখন পর্যন্ত শঙ্কামুক্ত। সংঘর্ষের সময় অস্ত্রধারীদের শনাক্ত করা হচ্ছে। তাঁদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। সামান্য বিষয়ে গোলাগুলিতে জড়িয়ে পড়ার পেছনে অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল কি না তা খতিয়ে দেখা যাচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন