বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ১৭ নভেম্বর সকালে ওই ছাত্রী সহপাঠীদের সঙ্গে স্থানীয় মাদ্রাসায় আরবি পড়তে যায়। সকাল আটটার দিকে মাদ্রাসা ছুটি হলে আবদুল মালেক ওই ছাত্রীকে থাকতে বলেন। অন্যদের বলেন চলে যেতে। পরে ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে তিনি ধর্ষণ করেন। গত শনিবার রাতে ওই ছাত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখন সে ধর্ষণের ঘটনাটি মাকে বলে।

ওই ছাত্রীর মা প্রথম আলোকে বলেন, আবদুল মালেক ওই মাদ্রাসায় শিক্ষকতার পাশাপাশি মাদ্রাসা পরিচালনার দায়িত্বে আছেন। ভয়ভীতি দেখানোর কারণে তাঁর মেয়ে এত দিন ঘটনাটি কাউকে বলেনি।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল বিকেলের দিকে শিক্ষক আবদুল মালেককে একমাত্র আসামি করে ছাত্রীর মা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। আজ সোমবার সকালে ওই ছাত্রীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষককে আজ দুপুরের মধ্যে আদালতে হাজির করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন