বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিহত যুবকের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পংকজ পরিবার নিয়ে চট্টগ্রাম নগরে ভাড়া বাসায় থাকতেন। শ্যামাপূজা উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে পংকজসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা গ্রামের বাড়িতে আসেন। এরপর শুক্রবার পংকজসহ পরিবারের সদস্যরা উপজেলার দক্ষিণ কাঞ্চনা এলাকায় মামার বাড়িতে বেড়াতে যান। সেখানে পংকজের মামাতো ভাইসহ এলাকার কয়েক যুবক রাতে পিকনিকের আয়োজন করেন।

পংকজের চাচা সন্তোষ তালুকদার প্রথম আলোকে বলেন, পিকনিকের সময় রাত ১১টার দিকে সঞ্জয় চৌধুরী নামের প্রতিবেশী এক যুবক অস্ত্র নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। পরে সঞ্জয় অস্ত্রটি হাতে নিয়ে অন্যদের নাড়াচাড়া করে দেখাচ্ছিলেন। এ সময় হঠাৎ গুলি বের হয়ে গেলে পংকজের পেটে বিদ্ধ হয়।

পরে পংকজের স্বজনেরা তাঁকে উদ্ধার করে দ্রুত সাতকানিয়া সদরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, গত শুক্রবার রাতে স্বজনদের সঙ্গে আনন্দ-ফুর্তি করার সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে এক যুবক আহত হয়েছিলেন। তবে ওই সময় বিষয়টি জানাজানি হয়নি। গতকাল রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই যুবক মারা গেছেন। এ ঘটনায় কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। তবে বিষয়টি তদন্ত করে আইনগতভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন