বিজ্ঞাপন

শাহজাহান চৌধুরীর বাড়ি সাতকানিয়া পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ছমদরপাড়া এলাকায়।

এদিকে শাহজাহান চৌধুরীর সঙ্গে মোহাম্মদ ইসমাইল (৪০) নামের জামায়াতের আরেক নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর বাড়ি সাতকানিয়া উপজেলার ছদাহা ইউনিয়নের সন্ধিপাড়া গ্রামে। তাঁর বিরুদ্ধে ২০১২ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত পুলিশের ওপর হামলা, সহিংসতা সৃষ্টি, বিস্ফোরক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে সাতটি মামলা আছে। এর মধ্যে পাঁচটি মামলায় পরোয়ানাভুক্ত পলাতক আসামি তিনি।

গত ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে ঘিরে ঢাকার বায়তুল মোকাররমে মুসল্লিদের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়। একপর্যায়ে পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হন।

এ ঘটনায় হেফাজতের আমির জুনায়েদ বাবুনগরীসহ জামায়াত-বিএনপির নেতা–কর্মীদের আসামি করে হাটহাজারী থানায় পৃথক ১০টি মামলা করে পুলিশ।
পুলিশ সূত্র জানায় শাহজাহান চৌধুরীর বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগে ১৫টির বেশি মামলা রয়েছে।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা ঈদ উপলক্ষে গ্রামের বাড়িতে এসে গোপন বৈঠকের চেষ্টা করছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন