সাতক্ষীরায় করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে দুই নারীর মৃত্যু

বিজ্ঞাপন
default-image

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চার ঘণ্টার ব্যবধানে কোভিড -১৯–এ আক্রান্ত এক নারী ও করোনার উপসর্গ নিয়ে আরও এক নারী মারা গেছেন। গতকাল সোমবার রাতে তাঁরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ নিয়ে করোনার উপসর্গ নিয়ে ২০৪ জন মারা গেছেন বলে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া নারীর নাম তারঙ্গীনি মণ্ডল (৪৮)। তিনি সাতক্ষীরা সদর উপজেলার গোয়ালপোঁতা গ্রামের বাসিন্দা। করোনায় মারা যাওয়া নারীর নাম ফজিলা খাতুন (৬০)। তিনি তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা এলাকার বাসিন্দা।
সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মানস কুমার মণ্ডল জানান, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে তারঙ্গীনি মণ্ডল হাসপাতালে ভর্তি হন ২ সেপ্টেম্বর। ওই দিনই তাঁকে আইসোলেশন ইউনিটে রেখে চিকিৎসা শুরু করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে শনিবার তাঁকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রাত সাড়ে নয়টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর করোনা আছে কি না, তা পরীক্ষার জন্য নমুনা নিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। তবে আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মানস কুমার মণ্ডল আরও বলেন, ফজিলা খাতুন কাশি, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ১ সেপ্টেম্বর সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। তাঁকে আইসোলেশন ইউনিটে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। তাঁর নমুনা নিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকে পাঠানো প্রতিবেদনে তিনি করোনা পজিটিভ উল্লেখ করা হয়। হঠাৎ তাঁর অবস্থার অবনতি হলে শনিবার তাঁকে হাসপাতালের আইসিইউয়ে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে রেখে চিকিৎসা দেওয়ার একপর্যায়ে সোমবার রাত দেড়টার দিকে তিনি মারা যান।
সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক রফিকুল ইসলাম জানান, ওই দুই নারীর লাশ স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বজনদের দাফন করার জন্য বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন