default-image

সাতক্ষীরায় উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া অনিল বিশ্বাস (৭০) কোভিড-১৯–এ আক্রান্ত ছিলেন। গতকাল শুক্রবার তাঁর করোনাভাইরাস পরীক্ষার প্রতিবেদন পজিটিভ এসেছে।

সাতক্ষীরায় এই প্রথম করোনায় আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি মারা গেলেন। মৃত অনিল বিশ্বাসের বাড়ি জেলার দেবহাটা উপজেলার সদর ইউনিয়নের রত্নেশ্বর গ্রামে।

দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা আবদুল লতিফ জানান, অনিল বিশ্বাস গত সোমবার বিকেলের দিকে শ্বাসকষ্ট নিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন। তাঁকে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। রাতে তাঁর জ্বর আসে। পরদিন মঙ্গলবার সকালে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে করোনা রোগীর জন্য নির্ধারিত সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু পাঠানোর আগেই সকাল ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মারা যাওয়ার পর অনিল বিশ্বাসের নমুনা নিয়ে পরীক্ষার জন্য যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়রে (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টারে পাঠানো হয়। গতকাল তাঁর প্রতিবেদন আসে পজিটিভ।

আবদুল লতিফ আরও জানান, মারা যাওয়ার পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনিল বিশ্বাসের মরদেহ সৎকারের ব্যবস্থা করা হয় এবং প্রশাসন মৃত ব্যক্তির বাড়িটি লকডাউন (অবরুদ্ধ) করে।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন হুসাইন সাফায়েত জানান, সাতক্ষীরায় এই প্রথম কোনো ব্যক্তি করোনা পজিটিভ নিয়ে মারা গেলেন।

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরায় ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ১৬ জনের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন এসেছে। এর ১৫ জনেরই প্রতিবেদন নেগেটিভ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0