বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে আসা রেড ক্রিসেন্টের আজীবন সদস্য কাজী আক্তার হোসেন ও শেখ রাশিদুজ্জামান বলেন, তাঁরা বেলা ১১টার দিকে অফিসে এসে কাউকে পাননি। এ সময় অফিস সহকারী কামরুল ইসলাম তাঁদের জানান, নির্বাচন কমিশনের কেউ আসেননি। দুপুর পর্যন্ত অপেক্ষা করার পরও তাঁদের কাছে ফরম বিক্রি করা হয়নি।

একপর্যায়ে বেলা দেড়টার দিকে কয়েকজন সদস্য ক্ষুব্ধ হয়ে কার্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেন। খবর পেয়ে পৌনে তিনটার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ফটকের তালা খুলে দেয়।

সাতক্ষীরা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট সূত্রে জানা গেছে, আগামী ৪ ডিসেম্বর কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী, আজ বেলা ১১টা থেকে ২টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় নির্ধারণ করা হয়েছিল।

জানতে চাইলে কামরুল ইসলাম বলেন, মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে কি না, সেটি তিনি জানেন না। তিনি নিজে কোনো মনোনয়নপত্র বিক্রিও করেননি। বর্তমান সহসভাপতি শেখ নূরুল হক জানান, মনোনয়নপত্র কিনতে এসে তিনি তালাবন্দী হয়ে পড়েছিলেন। মনোনয়নপত্র বিক্রির ব্যাপারে প্রধান নির্বাচন কমিশনার তামিম আহমেদ বিস্তারিত বলতে পারবেন।

তামিম আহমেদ বলেন, ‘আমি সকালের দিকে একবার অফিসে গিয়েছিলাম। কিছুক্ষণ থেকে চলে আসি। অফিসে সদস্যসচিব ও অফিস সহকারী ছিল। তাদের ফরম বিক্রি করার কথা।’

সাতক্ষীরা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের সহকারী পরিচালক এস এম আক্তার জানান, তাঁর স্বজন মারা যাওয়ার গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় তিনি কুষ্টিয়ায় এসেছেন। মনোনয়নপত্র বিক্রির বিষয়টি বর্তমান কমিটি নির্ধারণ করে। তাই তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন