default-image

শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের আন্দোলনের মুখে অবশেষে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরি বিভাগ চালু করা হয়েছে। আজ শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিভাগের উদ্বোধন করা হয়।

বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা সদর আসনের সাংসদ মীর মোস্তাক আহমেদ জরুরি বিভাগের উদ্বোধন করেন। এর ফলে এ এলাকার মানুষের চিকিৎসাসেবা পাওয়ার সুযোগ আরও বাড়ল।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালটির ইন্টার্ন (শিক্ষানবিশ) চিকিৎসক সংগঠনের সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক নয়ন হালদার জানান, ২০১১ সালে এই মেডিকেল কলেজ চালু হলেও হাসপাতাল চালু হয় ২০১৪ সালে। কিন্তু এখানে জরুরি বিভাগ ছিল না। দীর্ঘদিন ধরে এখানকার শিক্ষার্থীরা জরুরি বিভাগ চালুর দাবিতে আন্দোলন করে আসছিলেন। এর অংশ হিসেবে মানববন্ধন, স্মারকলিপি, সংবাদ সম্মেলন করেন তাঁরা। কিন্তু প্রতিবারই জরুরি বিভাগ দ্রুত চালুর আশ্বাস দিয়ে আন্দোলন থামিয়ে দেওয়া হয়।

রফিকুল ও নয়ন আরও জানান, গত ৫ ফেব্রুয়ারি একই দাবিতে নতুন করে আন্দোলন শুরু করেন তাঁরা। এবারও দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেওয়ায় ১২ ফেব্রুয়ারি কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। এরপরও দাবি বাস্তবায়িত হয়নি। তাঁরা দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে কর্মবিরতি শুরু করেন। এরপর ২৯ সেপ্টেম্বর হাসপাতাল মিলনায়তনে জরুরি সভা ডাকা হয়। এতে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, সিভিল সার্জন, কলেজটির অধ্যক্ষ, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও ইন্টার্ন চিকিৎসকদের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। সভায় সাত দিনের মধ্যে জরুরি বিভাগ চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর ১১ অক্টোবর জরুরি বিভাগ উদ্বোধনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। তা-ও বাস্তবায়িত না হলে শিক্ষানবিশ চিকিৎসকেরা আবার কর্মবিরতি ডাক দেন। এরপর আজ জরুরি বিভাগ চালু হলো।

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান, মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ কাজী হাবিবুর রহমান, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. রফিকুল ইসলাম, সহকারী পরিচালক কুদরত-ই খুদা, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সভাপতি আজিজুর রহমান, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সভাপতি মোখলেছুর রহমান, হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগের প্রধান রুহুল কুদ্দুস, মেডিসিন বিভাগের প্রধান কাজী আরিফ আহমেদ প্রমুখ।

মন্তব্য পড়ুন 0