বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আসামির নাম বাপ্পী হোসেন (৩০)। সান্তাহার পৌর শহরেই তাঁর বাড়ি।

গৃহবধূকে তাঁর বাবার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে বাপ্পী কৌশলে সান্তাহারের একটি বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়াবিবাদের কারণে ওই গৃহবধূ বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলায় তাঁর বাবার বাড়িতে ছিলেন। বিবাদ মিটিয়ে নেওয়ার জন্য গত বৃহস্পতিবার তিনি আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার শহরে ননদের বাসায় আসেন। সেখান থেকে স্বজন বাপ্পী হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে গৃহবধূ তাঁর শ্বশুরবাড়িতে যান। সেখানে মীমাংসা না হলে গৃহবধূকে তাঁর বাবার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে বাপ্পী কৌশলে সান্তাহারের একটি বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন। গৃহবধূর চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এলে বাপ্পী সেখান থেকে পালিয়ে যান।

আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জালাল উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন