default-image

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার জংশন স্টেশনে ট্রেনে কাটা পড়ে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ওই ব্যক্তির নাম আসাদুল হক খন্দকার (৩২)। আজ মঙ্গলবার সকালে স্টেশনের দক্ষিণে বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে। আসাদুল হক আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের সান্দিড়া গ্রামের মৃত মখলেসুর রহমানের ছেলে।

সান্তাহার রেলওয়ে জিআরপি থানা সূত্রে জানা গেছে, সকালে আসাদুল ঘন কুয়াশার মধ্যে রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় পার্বতীপুর থেকে রাজশাহীগামী ৩২ ডাউন উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ওই স্থানে এসে পড়লে ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে আসাদুল ঘটনাস্থলেই মারা যান। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং পরে তাঁর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

সকালে আসাদুল ঘন কুয়াশার মধ্যে রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় পার্বতীপুর থেকে রাজশাহীগামী ৩২ ডাউন উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ওই স্থানে এসে পড়লে ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে আসাদুল ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এদিকে পৃথক ঘটনায় গতকাল সোমবার দুপুরে সান্তাহার জংশন স্টেশনের স্টেশনমাস্টারের কার্যালয়ের সামনে থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির (৬৫) লাশ উদ্ধার করে রেলওয়ে পুলিশ। সান্তাহার জিআরপি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলাম বলেন, ওই লাশের কোনো পরিচয় না পাওয়ায় ময়নাতদন্ত শেষে সান্তাহার শহরের সরকারি কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়েছে।

এই দুটি মৃত্যুর ঘটনায় থানায় পৃথক দুটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন