বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত ইয়ারদৌস হাসান ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, আজ সকালে পতনউষার ইউনিয়নের টিলাগড় গ্রামের ফসলি জমিতে লাশ পড়ে আছে দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে জানান। লাশের সুরতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীকালে তদন্তক্রমে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রায় ৩০ বছর আগে ফরজান ৩ শিশুসন্তানসহ স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়ি টিলাগড় গ্রামে পাঠিয়ে দেন। এরপর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ছয়-সাত বছর আগেও ফরজান খানকে একবার ফসলি জমিতে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। প্রায় ৩০ বছর আগে ফরজান ৩ শিশুসন্তানসহ স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়ি টিলাগড় গ্রামে পাঠিয়ে দেন। এরপর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। মাঝেমধ্যে সন্তানদের দেখতে তিনি সাবেক স্ত্রীর বাবার বাড়িতে যেতেন।

নিহত ব্যক্তির স্বাবেক স্ত্রী শামসুন বেগম ও তাঁর বড় ছেলে সোহেল খান বলেন, সকালে ঘুম থেকে উঠে মানুষের চিৎকার শুনে বাড়ি থেকে বের হয়ে তাঁরা লাশ দেখতে পান। পরে লাশটি শনাক্ত করেন তাঁরা।

তবে ফরজান খানের ছোট বোন ইয়ারুন বেগম বলেন, তাঁর ভাইকে কেউ হত্যা করে জমিতে ফেলে গেছে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচার দাবি করেন।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন