তবে হাইওয়ে পুলিশের দাবি, সড়কের শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়মিত অবৈধ যানের বিরুদ্ধে মহাসড়কে অভিযান চলছে। তবে গতকাল রেডিও কলোনি এলাকা থেকে কোনো অটোরিকশা আটক করা হয়নি।

নিহত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রতিদিনের মতো গতকাল সকাল ১০টার দিকে নাজমুল অটোরিকশা নিয়ে বের হন। দুপুরে নাজমুল তাঁর স্ত্রীর কারখানায় গিয়ে স্ত্রীকে জানান, রেডিও কলোনি এলাকা থেকে তাঁর অটোরিকশা আটকের পর পুলিশ হাইওয়ে থানায় নিয়ে গেছে। নাজমা সন্ধ্যায় কাজ থেকে বাসায় ফিরে অটোরিকশা ছাড়িয়ে নিয়ে আসার বিষয়ে পদক্ষেপ নেবেন বলে তাঁর স্বামীকে জানান। সন্ধ্যায় নাজমা বাসায় ফিরে অটোরিকশা গ্যারেজের মালিকের সঙ্গে দেখা করেন। গ্যারেজের মালিক অটোরিকশা ছাড়াতে তিন হাজার টাকাসহ নাজমুলকে সঙ্গে নিয়ে যেতে বলেন।

নাজমা খাতুন প্রথম আলোকে বলেন, ‘দুপুরের পর সে অফিসে গিয়ে আমাকে জানায়, কয়েকজন ছেলের মাধ্যমে পুলিশ অটোরিকশা নিয়ে গেছে। সন্ধ্যায় বাসায় এসে আমি গ্যারেজমালিকের কাছে গিয়ে জানতে পারি, অটোরিকশা ছাড়াতে ৩ হাজার টাকা লাগবে। সন্ধ্যা পর্যন্ত ঠিকই ছিল। পরে আমি বাসায় এসে দরজার ফাঁক দিয়ে দেখি, নাজমুল গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।’

সাভার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিকুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল রেডিও কলোনি এলাকা থেকে কোনো ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা জব্দ করা হয়নি। হয়তো তাঁদের পারিবারিক কিংবা ব্যক্তিগত কারণে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

সাভার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল হক প্রথম আলোকে বলেন, রাত নয়টার দিকে খবর পেয়ে নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে গতকাল রাতেই তাঁর লাশ রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে ময়নাতদন্ত হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে নিহত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, এর আগেও নাজমুল আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন