default-image

ঢাকার সাভারে স্কুলছাত্রী নীলা হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাকিব হোসেন (২০) নামের আরও এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার রাতে পৌর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সাকিব পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের ছেলে। তাঁর বাড়ি পৌর এলাকার মধ্যপাড়ায়।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারের পর সাকিবকে আজ মঙ্গলবার ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালতের কাছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁর পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হবে।

নিহত নীলা রায় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার বালিরটেক গ্রামের নারায়ণ রায়ের মেয়ে। পরিবারের সঙ্গে নীলা সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনি মহল্লায় থাকত। সে স্থানীয় অ্যাসেড স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় গত ২১ সেপ্টেম্বর রাতে হাসপাতালে যাওয়ার পথে কলেজছাত্র মিজানুর রহমান, তাঁর বন্ধু সাকিবসহ কয়েকজনে মিলে নীলাকে হত্যা করেন। তবে তাৎক্ষণিক তথ্য বা প্রমাণ না পাওয়ায় মামলায় সাকিবের নাম উল্লেখ করা যায়নি।

সাভার থানার পরিদর্শক (ইন্টেলিজেন্ট) নির্মল কুমার দাশ বলেন, নীলা হত্যার ঘটনায় তাঁর বাবা নারায়ণ রায় সাভার থানায় হত্যা মামলা করেছিলেন। মামলায় সাকিবের নাম না থাকলেও তদন্তে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তাঁর (সাকিব) জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে ঘটনার কয়েক দিনের মধ্যে এক সহযোগীসহ মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন