বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শিশুর স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, লিজা বেগমের স্বামী মর্তুজ আলী সংযুক্ত আরব আমিরাতে থাকেন। লিজার শ্বশুরবাড়ি উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়নের সন্দ্রাবাদ গ্রামে। স্বামী বিদেশে থাকায় লিজা একমাত্র ছেলে মাহিনকে নিয়ে কৌলা গ্রামে বাবার বাড়িতে থাকেন। প্রতিদিনের মতো গতকাল রাতে লিজা ছেলে মাহিনকে নিয়ে খাটে ঘুমিয়ে পড়েন। দিবাগত রাত তিনটার দিকে হঠাৎ তাঁর ঘুম ভাঙে। এ সময় দেখেন, মাহিন পাশে নেই। ঘরে খোঁজাখুঁজি করে ছেলেকে পাননি। একপর্যায়ে দেখা যায় কাঁচা বসতঘরের এক পাশে সিঁধকাটা।

খবর পেয়ে আজ বুধবার ভোরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। সকাল ১০টার দিকে লিজার বাবার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, মাহিনের জন্য তাঁর মাসহ স্বজনেরা বিলাপ করছেন। প্রতিবেশীরা তাঁদের সান্ত্বনা দিচ্ছেন। লিজা হাউমাউ করে কেঁদে উঠে বলেন, ‘কই গেলে রে বাবা! আমারে ফালাইয়া কই গেলে। আমার বুকর ধনরে আনিয়া দেও।’

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কুলাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে মামলা হবে। লিজা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। শিশু মাহিনের সন্ধানে তাঁরা চেষ্টা চালাচ্ছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন