বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিআরবি নিয়ে মোশাররফ হোসেন বলেন, হাসপাতাল অনেক হয়েছে। রেলওয়ের জায়গার মধ্যে অনেক হাসপাতাল হয়েছে। ইউএসটিসি, ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, ডায়াবেটিস হাসপাতাল সব রেলওয়ের জায়গায় হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সিআরবিতে হাসপাতাল হলে আমাদের রক্তের ওপরে হতে হবে। এক বিন্দুও ছাড় দেব না। এভারকেয়ার হাসপাতাল হয়েছে নগরের বাইরে। ওখানে রোগীরা যাচ্ছে। তাই এখানে হাসপাতাল নয়।

এ সময় কালুরঘাট বেতারকেন্দ্রে বিএনপির সমাবেশ করার ঘোষণার সমালোচনা করেন মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, অগ্নিঝরা মার্চ মাসে দু জায়গায় দুটি সমাবেশ হচ্ছে। বিএনপি পলোগ্রাউন্ডে করছে এটা ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছু নয়। এই ষড়যন্ত্রকে আমরা চট্টলবাসী রুখে দাঁড়াব।

তিনি বলেন, বিএনপি রেডিও স্টেশনে যাবে ঘোষণা দিয়েছিল। তারা বলেছে জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। কখন ঘোষণা দিয়েছিলেন? তিনি ২৮ মার্চ ঘোষণা দিয়েছেন। আসল সত্য হলো, ২৫ তারিখ বঙ্গবন্ধু ওয়ারলেসের মাধ্যমে স্বাধীনতার ঘোষণা করেন। এর পর ২৬ মার্চ বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন এম এ হান্নান।

সভায় সভাপতিত্ব করেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নাগরিক সমাজের কো চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান। নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও নাগরিক সমাজের সদস্যসচিব ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরীর সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান, নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খোরশেদ আলম, কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম, পেশাজীবী নেতা এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম, অধ্যাপক ইদ্রিস আলী, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন, যুগ্ম সদস্যসচিব মহসিন কাজী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, সিআরবিতে হাসপাতাল করার জন্য একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করেছে রেলওয়ে। এরপর সিআরবি রক্ষায় আট মাস ধরে আন্দোলন করে আসছেন চট্টগ্রামের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন