বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বহিষ্কৃত সাতজন হলেন বলধারা ইউপির বিদ্রোহী প্রার্থী ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. ওবায়দুর রহমান, চান্দহর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য আফজাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও জামির্ত্তা ইউপির বিদ্রোহী প্রার্থী আবুল হোসেন, জয়মন্টপ ইউপির বিদ্রোহী প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বোরহান উদ্দিন ফকির, একই ইউপির আরেক বিদ্রোহী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অলি আহমদ মোল্লা, জামশা ইউপির বিদ্রোহী প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান এবং শায়েস্তা ইউনিয়নের বিদ্রোহী প্রার্থী ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল হালিম।

বহিষ্কৃত মিজানুর রহমান বলেন, ‘ছাত্রজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি করেছি। এরপর দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি। দলের পরীক্ষিত সৈনিক আমি। জনগণের চাপে নির্বাচন করছি। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিজয়ী হব।’

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুস সালাম বলেন, দলীয় পদে থেকে যাঁরা ইউপি নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন, তাঁদের সবাইকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। সংগঠনের সব ধরনের পদ থেকে তাঁদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দলীয় পদে থেকে যাঁরা নৌকার বিরুদ্ধে অন্য প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন, তাঁদের সতর্ক করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন