default-image

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে সাত বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা গতকাল বুধবার রাতে বাদী হয়ে মোহাম্মদ হোসেন নামের (২৮) এক যুবককে আসামি করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাগানবাড়ি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে।

এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, শিশুটিকে ধর্ষণের অভিযোগে তাঁর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। পুলিশ অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার আসামিকে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই শিশুকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাগানবাড়ি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে শিশুটি তার মায়ের সঙ্গে সিদ্ধিরগঞ্জের আজিবপুর এলাকায় তার ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে যায়। কিছুক্ষণ পর শিশুটিকে আশপাশে না পেয়ে ফুফুসহ পরিবারের লোকজন তাকে খুঁজতে থাকেন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে শিশুটি কান্না করতে করতে ফুফুর বাড়িতে আসে। পরিবারের লোকজনের জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, মোহাম্মদ হোসেন তাকে তাঁর ঘরে নিয়ে গিয়েছিলেন। এ সময় শিশুটির আকার–ইঙ্গিতে ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হয় পরিবার। শিশুটি জানায়, বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য তাকে ভয়ভীতি দেখিয়েছেন মোহাম্মদ হোসেন।

বিজ্ঞাপন

শিশুর মা-বাবাসহ স্বজনেরা থানায় এসে ঘটনাটি রাতেই পুলিশকে জানান। পুলিশ ওই রাতেই বাগানবাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মোহাম্মদ হোসেন ওরফে কাইল্লা বাবুকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান প্রথম আলোকে জানান, আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ধর্ষণের শিকার শিশু নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খাতুনের আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দি শেষে শিশুটিকে তার মায়ের কাছে দেওয়া হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া আসামিকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন