default-image

সিরাজগঞ্জে কাউন্সিলর পদে জয়ী তরিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার রাতে সিরাজগঞ্জ শহর থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে ওই দুজনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার হওয়া দুজন হলেন শহরের শাহেদনগর ব্যাপারীপাড়া এলাকার বাসিন্দা শাহাদত হোসেনের (বুদ্দিন) ছেলে সাব্বির হোসেন (২০) ও মৃত পান্নু ব্যাপারীর ছেলে মো. রতন (২২)। তাঁরা দুজন এজাহারভুক্ত আসামি।

শাহাদত হোসেন মামলার ১ নম্বর আসামি ও সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে পরাজিত প্রার্থী। এ নিয়ে এ হত্যা মামলায় ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে পাঁচজন এজাহারভুক্ত আসামি।

বিজ্ঞাপন

দুপুর ১২টার দিকে সদর থানা চত্বরে সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) স্নিগ্ধ আক্তার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দিবাগত রাতে সদর উপজেলার ফকিরতলা সেতু এলাকা থেকে সাব্বির হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাঁর কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও একটি গুলি উদ্ধার করা হয়। তাঁর তথ্যনুযায়ী আরেক আসামি রতনকে শহরের এসএস রোড থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত ১৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফা পৌরসভা নির্বাচনে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে বেসরকারিভাবে তরিকুল ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ওই রাতে প্রতিপক্ষ তাঁকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। পরদিন ১৭ জানুয়ারি তাঁর ছেলে একরামুল হাসান কাউন্সিলর পদে পরাজিত প্রার্থী শাহাদত হোসেনকে ১ নম্বর আসামি করে ৩২ জনের নামে থানায় হত্যা মামলা করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন