আবদুর রহমান জানান, ২০১৮ সালের ১৭ জুন দুপুরে পারিবারিক কলহের জেরে কুলছুম খাতুন তাঁর নাতি রিফাত হোসেনকে (৭) বাড়ির পার্শ্ববর্তী এক পাটখেতে নিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে ফেলে রাখেন। পরদিন রিফাতের বাবা চান মিয়া বাদী হয়ে কুলছুম খাতুন ও প্রতিবেশী সাইদুল হককে আসামি করে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মামলা করেন।

পরে পুলিশ অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে। পরে আদালতে কুলছুম খাতুন হত্যার কথা স্বীকার করেন। এরপর দীর্ঘ শুনানি শেষে আজ জেলা ও দায়রা জজ কুলছুমকে মৃত্যুদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর আসামি সাইদুল হককে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন