বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাংবাদিকেরা আজ সকাল ১০টা থেকে প্রায় দেড় ঘণ্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ করে রাখেন। সাংবাদিকদের এ কর্মসূচির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে শিয়ালকোল বাজার বণিক সমিতি এক ঘণ্টাব্যাপী দোকানপাট বন্ধ রাখে।

কর্মসূচি চলাকালে সাংবাদিক নেতারা বলেন, ‘সাংবাদিকেরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে এসে লাঞ্ছিত হবেন, তাঁদের অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখানো হবে—এটা কখনোই কাম্য নয়। আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থক ও কিছু বহিরাগত সন্ত্রাসীরা এই ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে। অবিলম্বে ওই হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করতে হবে।
সাংবাদিক সাজিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অবস্থান কর্মসূচি চলাকালে সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম, সহসভাপতি ইসরাইল হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক আবদুল মজিদ, সাবেক সভাপতি হারুন অর রশিদ, দপ্তর সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সাবেক অর্থ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, জহুরুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য দেন। প্রায় দেড় ঘণ্টা পর পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে আশ্বস্ত করলে সাংবাদিকেরা অবরোধ তুলে নেন।  

শিয়ালকোল ইউপি নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড (সমান সুযোগ–সুবিধা) নিশ্চিত করার দাবিতে স্বতন্ত্র চার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সদর উপজেলার শিয়ালকোল বাজার এলাকায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। ওই সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিতে আসার পথে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মঞ্জুরুল আলম ও তাঁর সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সেলিম রেজার সমর্থকেরা। এ সময় ছবি তুলতে গেলে সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহসভাপতি ইসরাইল হোসেনসহ দুই সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালানো হয়। এ ছাড়া এ সময় সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের হুমকি–ধমকি ও অস্ত্র প্রদর্শন করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কর্মী–সমর্থকেরা।

এ বিষয়ে শিয়ালকোল ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সেলিম রেজা রোববার সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন,‘সাংবাদিকদের ওপর হামলার বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। আমি এবং আমার কর্মীরা নির্বাচনী প্রচারণায় মাঠে ছিলাম। তবে যারাই হামলা চালিয়ে থাকুক, তারা আসন্ন নির্বাচনে আমার অবস্থান ভালো দেখে জনপ্রিয়তা বিনষ্ট করতেই পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন