default-image

সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী কাউন্সিলর মো. তরিকুল ইসলাম খান হত্যা মামলার আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার রাতে উল্লাপাড়া উপজেলার মোহনপুর এলাকা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ সূত্র জানায়, গ্রেপ্তার হওয়া দুই আসামি হলেন সিরাজগঞ্জ পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের শাহেদনগর ব্যাপারীপাড়া এলাকার মো. শহীদের ছেলে আশিকুর রহমান ইমন  (২১)  ও ওয়াজ নবীর ছেলে মাহবুব হাসান বাঁধন (২০)। তাঁরা রোববার বিকেলে তরিকুল ইসলাম হত্যায় জড়িত থাকার বিষয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শহরের ২ নম্বর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক তরিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, শনিবার রাতে উল্লাপাড়া উপজেলার মোহনপুর এলাকা থেকে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে এই মামলায় আটজনকে গ্রেপ্তার করা হলো।


রাত সোয়া আটটার দিকে সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া দুজন আদালতে জবানবন্দি দেওয়ার পর তাঁদের জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন মো. তরিকুল ইসলাম খান। নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর পরাজিত প্রার্থী শাহাদাত হোসেন বুদ্দিন ও তাঁর সহযোগীরা প্রকাশ্যে তরিকুল ইসলামকে ছুরিকাঘাত করেন। এরপর স্থানীয় লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় তরিকুল ইসলামের ছেলে একরামুল হাসান ১৭ জানুয়ারি রাতে শাহাদাত হোসেনসহ ৩২ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা আরও ৩০-৪০ জনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন