বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জেলা বিশেষ শাখা ও গণমাধ্যম) মো. লুৎফর রহমান বলেন, সিলেটের পুলিশ সুপার ঈদে পর্যটকদের হয়রানি কমাতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন। এর মধ্যে জনসমাগমস্থল চিহ্নিত করে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন।
সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জের সাদা পাথর, জাফলংয়ে জিরো পয়েন্ট এলাকাতেও পর্যটকদের নিরাপত্তায় বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এসব এলাকা ভারত সীমান্তবর্তী হওয়ায় পর্যটকেরা ভুল করে যাতে ভারত সীমান্তের দিকে পা না বাড়ান, সে জন্য বিজিবির সঙ্গে সমন্বয় করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লুশিকান্ত হাজং বলেন, নৌকা ভাড়া নির্ধারণ, হোটেল-রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীদের পর্যটকদের হয়রানি না করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ঈদে বেড়াতে গিয়ে অনেকে পানিতে ডুবে ঈদের আনন্দ বিষাদে পরিণত হয়। বিষয়গুলো মাথায় রেখে সাদা পাথরের বিপজ্জনক স্থানগুলোতে যাতে পর্যটকেরা না নামেন, সে জন্য লাল নিশানা টাঙিয়ে নিরাপত্তার জন্য স্বেচ্ছাসেবক, পুলিশ ও প্রশাসনের আলাদা দল গঠন করা হয়েছে। সাদা পাথরে সার্বক্ষণিক স্বেচ্ছাসেবক ডুবুরি দল প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এ ছাড়া সব বিষয় নজরদারির জন্য প্রশাসনের আলাদা দল গঠন করা হয়েছে।

জাফলং সাব জোন টুরিস্ট পুলিশের পরিদর্শক রতন শেখ বলেন, এরই মধ্যে সিলেট অঞ্চলের টুরিস্ট পুলিশের সুপার আলতাফ হোসেনসহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল ইসলাম জাফলং পরিদর্শন করে দিকনির্দেশনা দিয়ে গেছেন।

জৈন্তাপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) রিপামনি দেবী বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বয়ে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। জৈন্তাপুরের পর্যটনকেন্দ্র লালাখালে প্রশাসনের নজরদারির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সিলেট হোটেল-মোটেল রেস্টহাউস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুমাত নুরী বলেন, ঈদ–পরবর্তী সময়ে সিলেটের পর্যটনকেন্দ্রে ঘুরে বেড়াতে পর্যটকেরা আগেভাগেই বিভিন্ন হোটেল-মোটেল অগ্রিম বুকিং করে রেখেছেন। অনেকে আবার ঈদের ছুটি নিশ্চিত হওয়ার পর বুকিং করবেন বলে জানিয়ে রেখেছেন। এরই মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হোটেলে অর্ধেকের বেশি কক্ষ বুকিং করেছেন পর্যটকেরা। আশা করছেন ঈদের মৌসুমে পর্যটকদের উপস্থিতি আশানুরূপ হবে।

সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সিলেট মহানগর ও জেলায় টুরিস্ট পুলিশ, জেলা পুলিশের সমন্বয়ে টহল দল বৃদ্ধিসহ বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এর বাইরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদেরও (ইউএনও) সমন্বয় করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন