সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) তথ্যে জানা গেছে, কুশিয়ারা নদীর ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে আজ বেলা ৩টার দিকে পানি ১০ দশমিক ৩৬ মিটার উচ্চতায় রয়েছে, যা ওই পয়েন্টে বিপৎসীমার দশমিক ৯১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া কুশিয়ারা নদীর অমলশিদ পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার দশমিক শূন্য ৭ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ওই পয়েন্টে পানি ১৫ দশমিক ৩৩ মিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। নদীর শেওলা পয়েন্টে গতকাল সোমবারের তুলনায় পানি কিছুটা বৃদ্ধি পেলেও আজ বেলা ৩টায় বিপৎসীমার দশমিক ৩২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শেওলা পয়েন্টে পানি ১২ দশমিক ৭৩ মিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। নদীর শেরপুর পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার দশমিক ৭৯ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ওই পয়েন্টে আজ বিকেলে ৭ দশমিক ৭৬ মিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে।

কুশিয়ারা নদীর পানি এখনো বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সুরমা নদীর সিলেট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার দশমিক ৯২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ওই পয়েন্টে আজ বেলা ৩টার দিকে ৯ দশমিক ৮৮ মিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হয়েছে।

লুভা নদীর লুভাছড়া পয়েন্টে পানি গতকালের তুলনায় দশমিক শূন্য ৬ সেন্টিমিটার কমে ১২ দশমিক ৭১ মিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হয়েছে।

সারি নদীর সারিঘাট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ২ দশমিক ৮৫ সেন্টিমিটার নিচে রয়েছে। আজ বেলা ৩টা পর্যন্ত ৯ দশমিক ৫০ মিটার উচ্চতায় পানি প্রবাহিত হয়েছে। ধলাই নদীর ইসলামপুর পয়েন্টে পানি গতকালের তুলনায় দশমিক শূন্য ৪ সেন্টিমিটার কমে ৮ দশমিক ৪৯ মিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে।

পাউবো সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী আসিফ আহমেদ বলেন, সিলেটের নদ-নদীর পানি কমছে। তবে কুশিয়ারা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বৃষ্টির প্রভাব কমে আসায় পানি আরও কমবে বলে আশা করা যাচ্ছে। কুশিয়ারা নদীর পানিও কমে আসবে বলে জানান তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন