সিলেটে করোনায় মৃত্যু ২০০ ছাড়াল

বিজ্ঞাপন
default-image

সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে আজ বুধবার সকাল আটটা পর্যন্ত এই ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে করোনায় মৃত্যুর হিসাব এটি। এ নিয়ে বিভাগে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে গেল। ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৫৬ জন। এ নিয়ে বিভাগে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়াল ১১ হাজার ৫৫৮।

সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যে জানা গেছে, সিলেট বিভাগে গত ৪ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। ওই ব্যক্তি মৌলভীবাজারের রাজনগরের ব্যবসায়ী ছিলেন। যদিও মারা যাওয়ার পরদিন ৫ এপ্রিল তাঁর করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছিল। ওই দিনই মোট দুজন করোনায় আক্রান্ত শনাক্তের মধ্য দিয়ে বিভাগে প্রথম করোনার সংক্রমণের কথা জানা যায়। এরপর থেকে ক্রমেই বড় হতে থাকে করোনায় মৃত্যুর মিছিল। ১২ জুলাই বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর হিসাব দাঁড়ায় ১০১। এরপর আজ ৯ সেপ্টেম্বর মৃত্যুর এই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০১।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

করোনায় মৃত্যু প্রথম শতকের ঘর ছাড়ায় প্রায় তিন মাসে, আর দ্বিতীয় শতকের ঘর ছাড়াল পরের দুই মাসে। দিন হিসাবে বলা যায়, ৪ এপ্রিল থেকে ১২ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত ৯৯ দিনে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মারা যান ১০১ জন। আর ১২ জুলাই থেকে পরবর্তী ৬০ দিনে করোনায় মারা যান আরও ১০০ জন। বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের মধ্যে সিলেট জেলায় রয়েছেন ১৪৫ জন, সুনামগঞ্জ জেলায় ২২, হবিগঞ্জ জেলায় ১৪ ও মৌলভীবাজার জেলায় ২০ জন।

বিভাগে এ পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত ১১ হাজার ৫৫৮ জনের মধ্যে সিলেট জেলায় রয়েছেন ৬ হাজার ১৮৮ জন, সুনামগঞ্জ জেলায় ২ হাজার ১৬৫, হবিগঞ্জ জেলায় ১ হাজার ৬২০ এবং মৌলভীবাজার জেলায় ১ হাজার ৫৮৫ জন। বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫০ জন। এ নিয়ে বিভাগে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে মোট সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৫৩৫ জন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আনিসুর রহমান বলেন, সংখ্যার দিক দিয়ে বিভাগে করোনায় আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু বেড়েছে, এটা সত্য। কিন্তু মৃত্যুর হারের দিক বিবেচনায় কমেছে। তিনি বলেন, প্রথম দিকের তুলনায় বর্তমানে মৃত্যুর হার কমেছে। বিভাগে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর মোট সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ছিল কম। তবে বর্তমানে করোনায় সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সঙ্গে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে সুস্থতার হারও বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন