default-image

সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে আগামী শনিবার র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পদ্ধতিতে করোনার পরীক্ষা শুরু করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যেই করোনা শনাক্ত করা সম্ভব হবে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, করোনা দ্রুত শনাক্ত হলে আক্রান্ত ব্যক্তিকে সাধারণ মানুষের সংস্পর্শ থেকে আলাদা রাখা যাবে। এতে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা কমে আসবে।

শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত নভেম্বর থেকেই সিলেটে পরীক্ষামূলকভাবে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) থেকে পাঠানো ৫০টি কিট দিয়ে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করা হতো। আগামী শনিবার থেকে আইইডিসিআর থেকে পাঠানো ৫০০ কিট দিয়ে পুরোদমে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করানো হবে। ঢাকার আইইডিসিআরে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের একজন চিকিৎসা কর্মকর্তা ও একজন ল্যাব টেকনোলজিস্ট প্রশিক্ষণ নিয়ে গতকাল বুধবার সিলেটে ফিরেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ও শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের অধিক্ষক (সুপারভাইজার) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ব্রায়েন বঙ্কিম হালদার।

বিজ্ঞাপন

সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে কম সময়ে করোনা পরীক্ষা করা সম্ভব হবে। এর আগে আরটি–পিসিআরের মাধ্যমে পরীক্ষাগারে এক দিন পর করোনা পরীক্ষার ফলাফল জানা যেত। তবে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন দিয়ে পরীক্ষার মাধ্যমে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যে করোনা পরীক্ষার ফল জানা যাবে। অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে সাত দিন ধরে করোনার উপসর্গ (জ্বর, সর্দি, কাশি) থাকা ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে। তবে এর বেশি দিন ধরে উপসর্গ থাকলে নমুনা পরীক্ষা করানো হবে আরটি–পিসিআর ল্যাবে।

অ্যান্টিজেন পরীক্ষা তত্ত্বাবধানের দায়িত্বে থাকা চিকিৎসা কর্মকর্তা নওশাদ হোসেন বলেন, আগামী শনিবার থেকে অ্যান্টিজেনের পরীক্ষা স্বল্প সময়ে করা সম্ভব হবে। এর আগে গত মাসে পরীক্ষামূলকভাবে আইইডিসিআর থেকে পাঠানো ৫০টি কিট দিয়ে পরীক্ষা করা হয়। অ্যান্টিজেন দিয়ে পরীক্ষা করানোর জন্য আইইডিসিআর থেকে ৫০০টি কিট দেওয়া হয়েছে।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ব্রায়েন বঙ্কিম হালদার প্রথম আলোকে বলেন, শনিবার স্বল্প সময়ে অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষা করা শুরু হবে। এর মাধ্যমে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যেই রোগ নির্ণয় করা সম্ভব হবে। অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে পরীক্ষায় কোনো মতানৈক্য থাকলে পিসিআর ল্যাবে আবার নমুনা পরীক্ষা করা হবে।

মন্তব্য করুন