default-image

সিলেটের বিয়ানীবাজারের গজুকাটা সীমান্তে একটি মসজিদের পুনর্নির্মাণকাজে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) বাধা দেওয়ার পর পাল্টা অবস্থান নিয়েছিল বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এ অবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পতাকা বৈঠকে বসেছিল বিজিবি ও বিএসএফ। সেখানে নো ম্যানস ল্যান্ডে বিএসএফের তৈরি বাংকারগুলো সরিয়ে নেওয়ার জন্য বিজিবি অনুরোধ জানিয়েছে। তবে কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত ছাড়াই সে বৈঠক শেষ হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজিবি ও স্থানীয় লোকজনের সূত্রে জানা গেছে, বিয়ানীবাজারের দুবাগ ইউনিয়নের গজুকাটা এলাকায় সীমান্তের ১৩৫৭ নম্বর পিলারের বাংলাদেশ অংশে প্রায় ২০০ বছরের পুরোনো একটি মসজিদের ভবন ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় পুনর্নির্মাণের উদ্যোগ নেন স্থানীয় লোকজন। এ সময় কাজে বাধা দিয়ে বিএসএফ তাদের সীমান্তবর্তী নো ম্যানস ল্যান্ডে চারটি বাংকার নির্মাণ করে গত সোমবার রাত থেকে অবস্থান নেয়।

স্থানীয় লোকজন বলছেন, বাংকার নির্মাণের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে গত সোমবার রাত থেকে বিজিবি পাল্টা অবস্থান নেয়। এ অবস্থায় গতকাল বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত বিজিবি ও বিএসএফ পতাকা বৈঠকে বসে। বৈঠক থেকে বিএসএফের পক্ষ থেকে নির্মিত বাংকার সরিয়ে নেওয়ার জন্য বিজিবির পক্ষ থেকে বলা হয়। সেই সঙ্গে মসজিদের নির্মাণকাজে যেন বাধা দেওয়া না হয়, সেটিও বলা হয়।

পতাকা বৈঠক শেষে বিজিবির ৫২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. শাহ আলম সিদ্দিকী প্রথম আলোকে জানান, বৈঠকে কোনো সমাধান হয়নি। এ বিষয় শিগগির আবার বসা হবে। তবে আপাতত নির্মাণকাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। পাশাপাশি বিএসএফ নীতিমালা ভঙ্গ করে নো ম্যানস ল্যান্ডের ১৫০ গজের ভেতরে যে বাংকার নির্মাণ করেছে, সেসব যেন সরিয়ে নেওয়া হয়—সেটাও বিজিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। নিশ্চয়ই আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান হবে। তবে তাঁরা সীমান্তে নজরদারি রাখছেন তাঁরা।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন