বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওই নেতার নাম শহিদুল ইসলাম। তিনি বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি। এর আগে গত বৃহস্পতিবার একই অভিযোগে বাঁশবাড়িয়ায় ৬ জন নেতাকে অব্যাহতি দেয় উপজেলা ছাত্রলীগ। এ নিয়ে দুই ইউনিয়নের মোট সাতজনকে সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলো।

এস এম রিয়াদ জিলানী প্রথম আলোকে বলেন, ওই নেতা আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ছাদাকাত উল্ল্যাহ মিয়াজীর পক্ষে কাজ না করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সঙ্গে কাজ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় শহিদুলকে সব ধরনের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। উপজেলার চারটি ইউনিয়নেই দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। অন্য কোনো ইউনিয়নেও এমন কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে তাঁদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১১ নভেম্বর সীতাকুণ্ডের মোট ৯টি ইউপি ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সৈয়দপুর, মুরাদপুর, কুমিরা, সোনাইছড়ি ও ভাটিয়ারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীরা বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তবে বারৈয়াঢালা, বাড়বকুণ্ড, বাঁশবাড়িয়া ও সলিমপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হবে। বাড়বকুণ্ডে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছাদাকাত উল্ল্যাহ মিয়াজীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী এ জে বেলাল হোসেন। বাড়বকুণ্ড ছাড়া অন্য তিন ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন