বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে ওই ইউনিয়নে নতুনভাবে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীর। বিদ্রোহী প্রার্থীর বিষয়ে তিনি বলেন, ইউনিয়নের যেকোনো বাসিন্দা নির্বাচন করার যোগ্যতা রাখেন। সেই হিসেবে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে স্বাগত জানাবেন। তবে দলীয় পদে থেকে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করলে, সে বিষয়ে দল সিদ্ধান্ত নেবে।

আওয়ামী লীগের দলীয় সূত্র জানায়, সীতাকুণ্ডের ৯ ইউনিয়নের আটটির চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যানরা। শুধু মুরাদপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান জাহেদ হোসেন নিজামী মনোনয়ন পাননি। ওই ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল করিম বাহার। সে ক্ষেত্রে জাহেদ হোসেন নিজামীও স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার কথা ভাবছেন বলে জানা গেছে। তবে তিনি এখনো মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেননি।

জাহেদ হোসেন নিজামীর দাবি, তৃণমূল থেকে পাঠানো তালিকায় এবার তাঁর নাম যায়নি। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে মনোনয়নবঞ্চিত হয়েছেন। তিনি তাঁর নীতিনির্ধারণী ও দলের কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচন করবেন কি না, সিদ্ধান্ত নেবেন।

যাঁরা দলীয় মনোনয়ন পেলেন

সৈয়দপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম নিজামী, বারৈয়ারঢালায় রেহান উদ্দিন, মুরাদপুরে এস এম রেজাউল করিম বাহার, বাড়বকুণ্ডে ছাদাকাত উল্লাহ মিয়াজি, বাঁশবাড়িয়ায় শওকত আলী জাহাঙ্গীর, কুমিরায় মোরশেদ হোসেন চৌধুরী, সোনাইছড়িতে মনির আহমেদ, ভাটিয়ারীতে নাজিম উদ্দিন ও সলিমপুরে সালাহউদ্দিন আজিজ।

মনোনয়ন পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ছয়জন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আল মামুনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। অন্য দুজন স্থানীয় সাংসদ দিদারুল আলম ও একজন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাকের ভূঁইয়ার অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

আনন্দ মিছিল ও সড়কে যানজট

এদিকে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ঢাকা থেকে নিজ নিজ এলাকায় ফেরার খবরে তাঁদের কর্মী-সমর্থকেরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে ভিড় করেন। এ সময় তাঁরা মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা, মিছিল করতে থাকেন। এতে আজ বিকেল পৌনে পাঁচটা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। ফলে দুর্ভোগে পড়ে গাড়িতে থাকা যাত্রীরা। সীতাকুণ্ড থানা-পুলিশকে যানজট নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা চালিয়ে যেতে দেখা যায়।

সরেজমিন দেখা যায়, সোনাইছড়ি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী মনির আহমেদ আসার খবরে পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মী ওই ইউনিয়ন থেকে দুই কিলোমিটার এগিয়ে এসে কুমিরা ইউনিয়নের স্মৃতি ৭১ এলাকায় জড়ো হন। এ সময় তাঁদের মিছিলে মহাসড়কের চট্টগ্রামমুখী লেনে যানজটের সৃষ্টি হয়। বিকেল পাঁচটার দিকে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রাসহ সেখানে উপস্থিত হন কুমিরা ইউনিয়নের দলীয় মনোনীত প্রার্থী মোরশেদ হোসেন চৌধুরীর কর্মী-সমর্থকেরা। এ সময় মোরশেদ হোসেন চৌধুরী মিছিলের সামনে উপস্থিত ছিলেন। দুই নেতার অনুসারীরা এক জায়গায় জড়ো হওয়ায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। আটকে যায় অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি পরিবহনের গাড়িগুলো।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন