বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আল মামুন প্রথম আলোকে বলেন, আরিফুল আলম চৌধুরীকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়টি তিনি জানেন না। তাঁকে না জানিয়ে অব্যাহতির এই চিঠি দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল্লাহ আল বাকের ভুঁইয়া বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে দলের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত ছিল। ওই সিদ্ধান্তের আলোকে আরিফুলকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতির বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করেন তিনি। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আল মামুন ব্যক্তিগত কাজে কক্সবাজার থাকায় তাঁর সঙ্গে আলোচনা করা সম্ভব হয়নি। জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের পরামর্শে একক সইয়ে তাঁকে অব্যাহতি দেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন