default-image

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে বাড়ির সীমানা নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধের জেরে সংঘর্ষে ভাতিজার ছোড়া ইটের আঘাতে চাচার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে করিমগঞ্জের উত্তর কান্দাইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম সায়েম উদ্দিন (৬৫)। তিনি উপজেলার জয়কা ইউনিয়নের উত্তর কান্দাইল এলাকার মৃত ইসলাম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাড়ির সীমানা নিয়ে সায়েম উদ্দিনের সঙ্গে তাঁর ভাই ইমাম হোসেনের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। আজ বৃহস্পতিবার সকালে এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা–কাটাকাটি শুরু হয়। একপর্যায়ে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়। উভয় পক্ষের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় ইমাম হোসেনের ছেলে জজ মিয়া (৪০) আধলা ইট দিয়ে চাচা সায়েম উদ্দিনের দিকে ছোড়েন। বুকে লেগে সঙ্গে সঙ্গেই সায়েম উদ্দিন মাটিতে লুটিয়ে পড়ে অজ্ঞান হয়ে যান।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় লোকজন সায়েম উদ্দিনকে উদ্ধার করে করিমগঞ্জের প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

করিমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মমিনুল ইসলাম বলেন, বাড়ির সীমানা নিয়ে ভাই–ভাতিজাদের মধ্যে সংঘর্ষে এ ঘটনা ঘটে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ কিশোরগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ইট দিয়ে আঘাতকারী জজ মিয়ার বোন হালিমা আক্তারকে (৩৮) আটক করেছে পুলিশ। কারণ, সংঘর্ষ চলাকালে হালিমাও ইট দিয়ে প্রতিপক্ষকে ঢিল ছুড়েছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন