default-image

সুনামগঞ্জের ছাতকে গাড়ি পার্কিং কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ৫০ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। আহত ২০ জনকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের হাসনাবাদ ও করছখালী গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয় হাসনাবাদ বাজারে গাড়ি পার্কিং করা নিয়ে করছখালী গ্রামের ওলিউর রহমান ও হাসনাবাদ গ্রামের রুহুল আমিনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জেরে আজ সকালে দুই গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজন হাসনাবাদ রেললাইনের ওপর অবস্থান নিলে সংঘর্ষ ভয়াবহ রূপ নেয়। সংঘর্ষে রেললাইনের পাথর, ইট-পাটকেল ও দেশীয় অস্ত্র ব্যবহার করা হয়। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৫০ ব্যক্তি আহত হন।

সকালে দুই গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজন হাসনাবাদ রেললাইনের ওপর অবস্থান নিলে সংঘর্ষ ভয়াবহ রূপ নেয়। সংঘর্ষে রেললাইনের পাথর, ইট-পাটকেল ও দেশীয় অস্ত্র ব্যবহার করা হয়।

খবর পেয়ে ছাতক থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষে আহত কদরুল ইসলাম, সদরুল ইসলাম, আরশ আলী, শামছু মিয়া, সাগর আহমদ, শামসুল হক, সফির উদ্দিন সাদ্দাম, বিলাল আহমদ, নুমান আহমদ, ওয়ারিছ আলী, সফিকুল হক, সাহাব উদ্দিনসহ ২০ জনকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত নুরুল ইসলাম, সুজন মিয়া, রইছ আলী, বাহাউদ্দিন শাহী, খালেদ মিয়াকে ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অন্যান্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিম উদ্দিন বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, পরিস্থিতি এখন শান্ত। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন