default-image

সুনামগঞ্জ, ছাতক ও জগন্নাথপুর পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে শনিবার। এ দিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে জগন্নাথপুর পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে। অন্য দুই পৌরসভায় ভোট হবে ব্যালটের মাধ্যমে। ভোটের দিন সকালে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে যাবে ব্যালট পেপার।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার বলেন, নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতিটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের দিন সকালে ব্যালট পৌঁছে দেওয়া হবে। অন্যান্য সামগ্রী আজ শুক্রবার বিকেলে নেবেন সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের ভোট গ্রহণের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা।

সুনামগঞ্জে তিনটি পৌরসভায় মেয়র ও কাউন্সিলর পদে ১৬৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে মেয়র পদে ১০ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১২১ জন ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন।

সুনামগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী বর্তমান মেয়র নাদের বখত, বিএনপির দলীয় প্রার্থী মো. মুর্শেদ আলম ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মো. রহমত উল্লাহ। এই পৌরসভায় সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৪৯ জন ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ১৩ জন প্রার্থী আছেন। মোট ভোটার ৪৭ হাজার ১৫ জন। এখানে কেন্দ্র আছে ২৩টি।

বিজ্ঞাপন

ছাতক পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন দুজন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী বর্তমান মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী ও বিএনপির দলীয় প্রার্থী রাশিদা বেগম। এতে সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৩৩ জন, সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ১৪ জন প্রার্থী আছেন। এই পৌরসভায় ভোটার আছেন ৩০ হাজার ২৮০ জন। এখানে কেন্দ্র আছে ১৯টি।

জগন্নাথপুর পৌরসভায় মেয়র পদে প্রার্থী আছেন পাঁচজন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী বর্তমান মেয়র মো. মিজানুর রশিদ ভূঁইয়া, বিএনপির দলীয় প্রার্থী মো. হারুনুজ্জামান, স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারুজ্জামান, আমজাদ আলী ও বিষ্ণু রায়। এই পৌরসভায় সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৩৯ জন ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ৯ জন প্রার্থী আছেন। এ পৌরসভায় মোট ভোটার ২৮ হাজার ৬৪২ জন। এখানে কেন্দ্র আছে ১২টি।

সুনামগঞ্জের তিনটি পৌরসভায় শনিবার সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণের প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন