বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তিন দিন আগে রিয়াজুলের সঙ্গে তাঁর বাবা ও দাদির ঝগড়া হয়। এরপর গতকাল রিয়াজুলের মা ও ভাইয়ের সঙ্গেও তাসলিমা বেগমের কথা-কাটাকাটি হয়। এর জেরে গতকাল সন্ধ্যায় গ্রামের রাস্তায় তাসলিমা বেগমকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে রিয়াজুল পালিয়ে যান।

এ সময় স্থানীয় লোকজন তাসলিমা বেগমকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ বারকাহন গ্রামে অভিযান চালিয়ে রিয়াজুলকে আটক করেছে।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে রিয়াজুলকে আটক করা হয়েছে। তাসলিমা বেগমের লাশ সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন