বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কর্মবিরতির অংশ হিসেবে আজ সকাল থেকে সুনামগঞ্জ থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় দূরপাল্লার কোনো বাস চলেনি। এতে ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ যাত্রীরা।

জেলার পরিবহনশ্রমিকদের অভিযোগ, সুনামগঞ্জ থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় চলাচলকারী বাসগুলো সিলেটের কুমারগাঁও এলাকার তেমুখী বাইপাসে যাওয়ার পর বাসপ্রতি ৫০ টাকা চাঁদা নেওয়া হয়। দীর্ঘদিন ধরে সিলেট শ্রমিক ইউনিয়নের নামে এই চাঁদা তোলা হয়। তবে এর কোনো বৈধতা নেই। এদিকে চাঁদা না দিলে শ্রমিকদের মারধর করা হয়। বিষয়টি সিলেটের পরিবহন নেতা, প্রশাসন ও পুলিশকে জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি। তাই বাধ্য হয়েই তাঁরা কর্মবিরতির ডাক দিয়েছিলেন।

জানতে চাইলে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, বিষয়টি দ্রুত সমাধানের জন্য পরিবহনশ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক করা হয়েছে। একইভাবে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। যেখানে টাকা আদায়ের কথা বলা হয়েছে, সেখানে পুলিশি টহল আছে। শ্রমিকদের বলা হয়েছে, আর কোনো সমস্যা হবে না। এরপরও যদি কেউ টাকা আদায়ের চেষ্টা করে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সিলেট পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে শ্রমিকদের কর্মবিরতির কারণে সুনামগঞ্জে আসা অনেক পর্যটক দুর্ভোগে পড়েন। অনেকেই টিকিট কেটেও নির্ধারিত গন্তব্যে যেতে পারেননি। ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা আহসান হাবিব বলেন, ‘আমরা কয়েকজন টাঙ্গুয়ার হাওরে বেড়াতে এসেছিলাম। ফেরার জন্য বাসের টিকিটও নেওয়া ছিল। কিন্তু সকালে কাউন্টারে আসার পর জানানো হয় বাস চলবে না।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন