‘দাঁড়াও পথিক’ নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন সুনামগঞ্জের জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা আহমেদ মঞ্জুরুল হক চৌধুরী। সহযোগী নির্দেশক ছিলেন দেবাশীষ তালুকদার ও দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী।

নাটক শুরুর আগে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। সন্ধ্যা সাতটায় নাটক শুরু হয়।

নাটকটির রচয়িতা আহমেদ মঞ্জুরুল হক চৌধুরী বলেন, ‘নাটকে গণহত্যার চিত্রের পাশাপাশি আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে। কত রক্ত, কত ত্যাগের বিনিময়ে আমরা মহান স্বাধীনতা অর্জন করেছি, সেই গল্প বলা হয়েছে এটিতে। দুজন তরুণ আলোকচিত্রীকে দিয়ে গল্পের শুরু; যাঁরা হাওর–ভাটির এই প্রত্যন্ত গ্রামে ঘুরতে আসেন। সুরমা নদীর এক মাঝি তাঁদের নিয়ে যান নৈনগাঁও বধ্যভূমিতে। একটু ভিন্ন আঙ্গিকে নতুন প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে। একই সঙ্গে আমাদের গৌরব আর ত্যাগের গল্প মননে ধারণ করতে বলা হয়েছে নতুন প্রজন্মকে।’

নাটকে অভিনয় করেন হীরেন্দ্র ভূষণ তালুকদার, রুনা শাহীন আরা লেইস, পল্লব ভট্টাচার্য, দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী, দেবাশীষ তালুকদার, সাদিকুর রহমান খান, সামির পল্লব, অমিত বর্মণ, তূর্য দাস, আশীষ বর্মণ, রাজীব রায়, মাহফুজ আলম, তন্ময় চৌধুরী, মো. আমজাদ হোসেন ভূঁইয়া, সোহানুর রহমান, ইখতেখার সাজ্জাদ, শিপা আক্তার, ঝর্ণা আক্তার, নোভা চৌধুরী, মৌলি তালুকদার, প্রমি তালুকদার, মৌমিতা বিশ্বাস, নদী দে, অর্চি নাগ, বন্যা সরকার প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন