বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা সদরে মধুমতী নদীর সেতুর ওপর এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ওই শিশুর নাম সুরাইয়া (৪)। সে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের হাটখোলা গ্রামের গোলজার শেখের মেয়ে। আহত দুই মোটরসাইকেল আরোহী হচ্ছেন ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বাজরা গ্রামের ইকবাল শেখের ছেলে সোহান শেখ (২০) ও একই গ্রামের মঞ্জুরুল শেখের ছেলে সাজিদ শেখ (১৪)। তাঁদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে সুরাইয়া তার মা ও দুই বোনের সঙ্গে হেঁটে সেতুর ওপর দিয়ে মহম্মদপুরের দিকে আসছিল। এ সময় একই দিক থেকে আসা মোটরসাইকেলটি সুরাইয়াকে চাপা দিয়ে উল্টে যায়। এতে সুরাইয়া নিহত হয়।

পুলিশ ও সুরাইয়ার পারিবারিক সূত্র জানায়, মঙ্গলবার বিকেলে সুরাইয়া তার মা ও দুই বোনের সঙ্গে হেঁটে সেতুর ওপর দিয়ে মহম্মদপুরের দিকে আসছিল। এ সময় একই দিক থেকে আসা মোটরসাইকেলটি সুরাইয়াকে চাপা দিয়ে উল্টে যায়। এতে সুরাইয়া নিহত ও মোটরসাইকেল আরোহী সাজিদ ও সোহান আহত হয়।

সুরাইয়ার বাবা ভ্যানচালক গোলজার শেখ বলেন, ‘মেয়েডা মেলা দিন ধরে ব্রিজ দেহার বায়না ধরছিল। ওর মারে কলাম আমি কামে যাচ্ছি, তুমি নিয়ে যাও। মেয়েডা গেল, কিন্তু ফিরল লাশ হয়ে।’

মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পা কর্মকর্তা মোকছেদুল মোমিন জানান, মোটরসাইকেল আরোহী আহত দুজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, নিহত শিশুটির লাশ এখন পুলিশের হেফাজতে আছে। আগামীকাল ময়নাতদন্ত করা হবে। তারপর পরিবারের লোকজনের অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন