পাসপোর্ট কার্যালয়ের একাধিক সূত্র জানায়, সাংবাদিক রকিবুল ইসলাম তাঁর ব্যক্তিগত পাসপোর্ট আনার জন্য গত ১৮ এপ্রিল (সোমবার) সকালে কুমিল্লা পাসপোর্ট অফিসে যান। এ সময় তাঁর সঙ্গে মো. সাফি নামের অপর এক সাংবাদিক ছিলেন। রকিবুল টোকেন সংগ্রহ করে পাসপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তখন তাঁরা পাসপোর্ট অফিসের ভেতরে গণ্ডগোল দেখে এগিয়ে যান এবং দেখতে পান, ওই অফিসের উপপরিচালক (ডিডি) মো. নুরুল হুদা চেয়ার দিয়ে কয়েকজন পাসপোর্ট গ্রহীতাকে মারধর করছেন। এ সময় সাফি তাঁর মুঠোফোন থেকে দৃশ্যটির ভিডিও ধারণ করছিলেন।

হঠাৎ উপপরিচালক এগিয়ে এসে মুঠোফোন কেড়ে নেন এবং তাঁদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে থাকেন। খবর পেয়ে কুমিল্লা থেকে অন্য সাংবাদিকেরা পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে উপপরিচালকের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় কুমিল্লার কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সহিদুর রহমান পুলিশের একটি দল নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। তিন ঘণ্টা পর পুলিশের মধ্যস্থতায় কেড়ে নেওয়া মুঠোফোনটি ফেরত দেওয়া হয়।

আদালতের আদেশে উল্লেখ করা হয়, তদন্তকারী কর্মকর্তা সংবাদকর্মী রকিবুল ইসলাম ও মো. সাফির উপস্থিতিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে খসড়া মানচিত্র ও সূচিপত্রের ব্যাখ্যা প্রস্তুত করে সাক্ষীদের বক্তব্য লিপিবদ্ধ ও আলামত জব্দ করবেন। ঘটনার সত্যতা পেলে অপরাধের সঙ্গে অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম, বাবার নাম, ঠিকানা ও কীভাবে অপরাধ সংঘটিত হয়েছে তা তারিখ, সময় ও স্থানসহ বিস্তারিত তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করবেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালত কর্তৃক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে (১৫ কর্মদিবস) তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। তাঁর বিস্তারিত তদন্ত প্রতিবেদন অভিযোগ হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে সংশ্লিষ্ট অপরাধ আমলে নেওয়া হবে।

আদালত আরও বলেন, পরিবেশিত সংবাদ সত্য হলে উপপরিচালক মো. নুরুল হুদা তিন সেবাগ্রহীতাকে চেয়ার দিয়ে এবং নিজ হাতে পিটিয়ে ফৌজদারি অপরাধ করেছেন। সংবাদকর্মী রকিবুল ইসলাম ও মো. সাফিকে সাংবাদিক হিসেবে তাঁদের দায়িত্ব পালনে বাধা প্রদান, অসদাচরণ এবং মুঠোফোন কেড়ে নেওয়াও আইন বিরুদ্ধ বলে আদালতের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে।

অভিযোগ প্রসঙ্গে কুমিল্লা আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. নুরুল হুদার মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি মহামান্য আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। ঘটনার পর পুলিশ, কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ঘটনাস্থলে আসেন। আমি এ তদন্তকে স্বাগত জানাই। তদন্ত কর্মকর্তাকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। প্রকৃত সত্যটা উদ্‌ঘাটন হোক।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন