default-image

নীলফামারীর সৈয়দপুরে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে আরও এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। গত বুধবার রাত সাড়ে ১০টায় রংপুর সদর কোভিড-১৯ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলায় গ্রামের বাড়িতে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু মো. আলেমুল বাসার এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

মৃত ব্যক্তি হলেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. আব্দুর রাজ্জাক (৮৫)। তিনি সৈয়দপুর শহরের টেকনিক্যাল কলেজপাড়ায় থাকতেন। তবে তাঁর গ্রামের বাড়ি রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলায়। এ নিয়ে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায় কোভিড-১৯–এ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ২। আর করোনা সংক্রমণের সংখ্যা দাঁড়াল ৫০। তাঁদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৩৯ জন।

গত ২৭ জুন অসুস্থ অবস্থায় মো. আব্দুর রাজ্জাক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগে ভর্তি হন। পরদিন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরীক্ষার জন্য তাঁর শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ২৯ জুন তাঁর করোনাভাইরাস পজিটিভ ফলাফল আসে। পরে তাঁকে রংপুর সদর কোভিড-১৯ হাসপাতালের স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মারা যান তিনি।

গত ৩১ মে প্রথম কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা যান নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের নয়াটোলা এলাকার বাসিন্দা স্বর্ণ ব্যবসায়ী মো. সাহেদুজ্জামান সাঈদ (৩০)।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন