এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ওই ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ডিম সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত পিকআপচালক মো. আবদুল বারেক এবং তাঁর সহকারী মো. আতিকুল ইসলাম ও আশফাকুল আলম সকালের দিকে একটি পিকআপ নিয়ে ডিম সংগ্রহের জন্য সৈয়দপুর শহরের শহীদ তুলশীরাম সড়কে দহলা ব্রিজসংলগ্ন গুদাম থেকে লালমনিরহাটে পাটগ্রামের উদ্দেশে রওনা দেন। এ সময় তাঁদের পিকআপে একটি ব্যাগের মধ্যে ডিম ক্রয়ের ২ লাখ ৮৫ হাজার টাকা ছিল। সকাল আনুমানিক পৌনে নয়টার দিকে তাঁরা পিকআপটি নিয়ে ওয়াপদা রেলওয়ে গুমটির অদূরে সৈয়দপুর-দিনাজপুর বাইপাস সড়কে পৌঁছালে একটি মোটরসাইকেল নিয়ে দুই ব্যক্তি পেছন থেকে এসে পিকআপটির গতি রোধ করে।

এ সময় তারা (ছিনতাইকারী) প্রথমে সাইড দেওয়া নিয়ে পিকআপচালক বারেকের সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়ায়। পরে তাঁরা কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই পিকআপচালকের বুকে একটি পিস্তল ঠেকিয়ে ওই ২ লাখ ৮৫ হাজার টাকা নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়ে। এ ঘটনার পর পিকআপচালক বারেক সঙ্গে সঙ্গে মালিক শফিকুলকে মুঠোফোনে বিষয়টি জানান। পরে মালিক দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারেন।

শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমি শ্বাসকষ্টের কারণে কিছুটা শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় থানায় কোনো অভিযোগ করতে পারিনি।’ তবে থানায় লিখিত অভিযোগ করবেন বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ২২ নভেম্বর শহরের সৈয়দপুর-পার্বতীপুর রোড়ের কদমতলী এলাকায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে একই ডিম ব্যবসায়ীর পিকআপ থেকে ৬১ হাজার ৫০০ টাকা ছিনতাই হয়।