বিজ্ঞাপন

সিদ্দিকুল আলম বলেন, পরিকল্পিতভাবে হিটলার চৌধুরীর নেতৃত্বে অতর্কিত এ হামলা চালানো হয়েছে। এসব মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের পাশাপাশি তাঁর দশজন কর্মীকে আহত করা হয়েছে। তিনি হিটলার চৌধুরীর বাড়ির হামলার বিষয়টি ‘অপবাদ’ বলে দাবি করেন।

সৈয়দপুর থানার ওসি আবুল হাসনাত খান বলেন, খবর পেয়ে ওই এলাকায় তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠানো হয়। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, উভয় পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নির্বাচন কমিশনে অভিহিত করা হচ্ছে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোখছেদুল মোমিন জানান, ‘আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন।’ তবে তিনি সংঘর্ষের বিষয়টি এড়িয়ে যান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন