বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

উদ্ধার হওয়া পর্যটকেরা জানান, গতকাল বাঘকুম গ্রামের ১৪ জন তরুণ একটি ইঞ্জিনচালিত ছোট নৌকা নিয়ে সোনাদিয়া দ্বীপে বেড়াতে আসেন। সেখানে দুপুরের খাবার শেষে সবাই মিলে নৌকা নিয়ে উত্তর-পশ্চিমে বঙ্গোপসাগরে জাহাজ দেখতে যান।

রাত আটটার দিকে জাহাজ দেখে ফেরার পথে সাগরের মাঝপথে ব্ল্যাকের দিয়া এলাকায় তাঁদের বহনকারী নৌকাটি বালুচরে আটকে যায়। এ সময় নৌকার নিচের একটি কাঠ ভেঙ্গে ভেতরে পানি উঠতে শুরু করে। তখন তাঁরা মাছ ধরা জালের বয়া ধরে ভেসে থাকার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে সেখানকার তরুণদের মধ্যে একজন জরুরি সেবা নম্বরে (৯৯৯) কল করে তাঁদের উদ্ধারের জন্য প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা চান।

পরে উপজেলা প্রশাসন ও মহেশখালী থানা-পুলিশের সহযোগিতায় স্থানীয় লোকজন দুটি নৌকা নিয়ে ঘটনাস্থলে থেকে ১৪ জনকে উদ্ধার করেন। পরে উদ্ধার ব্যক্তিদের কুতুবজোম ইউনিয়নের ঘটিভাঙ্গা সাইক্লোন শেল্টারে নিয়ে তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি–তদন্ত) আশিক ইকবাল বলেন, স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় রাত ১১টার দিকে ১৪ জন পর্যটককে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাঁরা সবাই বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থী। এর মধ্যে একজন তরুণ এখনো নিখোঁজ। তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

জানতে চাইলে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান জানান, নিখোঁজ ওই তরুণকে উদ্ধারের জন্য আজ সকাল থেকে সাগরে অতিরিক্ত নৌকা নামিয়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন