বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সজীব খান, দেবহাটা থানার পুলিশ পরিদর্শক ফরিদ আহম্মেদ ও গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে শনিবার রাত নয়টার দিকে সাতক্ষীরা সদরের বৈকারি সীমান্ত এলাকা থেকে পার্থ মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে তিনি কীভাবে একাই ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করেছেন, তাঁর বর্ণনা দিয়েছেন। ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার কথাও স্বীকার করেছেন তিনি। পার্থ মণ্ডলের কাছ থেকে একটি ইলেকট্রিক কেবল ও সাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ১০ম শ্রেণির ছাত্রী বাড়ি থেকে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়। শুক্রবার সকালে একই গ্রামের তারক মণ্ডলের পরিত্যক্ত পুকুরের পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শুক্রবার রাতেই দেবহাটা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে পার্থ মণ্ডলকে একমাত্র আসামি করে মামলা করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন