অভিযুক্ত দুজন হলেন, স্কুলের বরখাস্ত হওয়া প্রধান শিক্ষক মো. শফিকুর রহমান ও স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাহমুদুল হক। বুধবার তাঁরা আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত তাঁদের জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠান।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ১৬ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৬ মে পর্যন্ত বিভিন্ন ভুয়া ব্যয় দেখিয়ে স্কুলের তহবিল থেকে ২ কোটি ৭৬ লাখ ৯৯৩ টাকা আত্মসাৎ করেন আসামিরা। বিষয়টি জানাজানি হলে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। পরে স্কুলের পরিচালনা কমিটি ভেঙে দেওয়া হয় এবং প্রধান শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়।

এ ঘটনায় ২০২১ সালের ২০ মে স্কুল অ্যাডহক কমিটির সভাপতি মো. ফজলে আজিজ নগরের কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী তপন কুমার দাশ প্রথম আলোকে বলেন, সম্প্রতি আসামিরা হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন। তাঁদের ছয় সপ্তাহের মধ্যে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন উচ্চ আদালত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন