বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সুরঞ্জিত সরকার বলেন, ‘স্থানীয় সাংসদ আয়েন উদ্দিন নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এরই মধ্যে তিনটি পথসভা করেছেন নৌকার প্রার্থীর পক্ষে। আর আমার নির্বাচনী প্রচারণাকে বাধাগ্রস্ত করতে ২০-২৫ জন বহিরাগত নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে হেলমেট বাহিনী। এই বাহিনী সর্বশেষ শুক্রবার বিকেলে ইউনিয়নের খিদিরহাটা বদিরমোড় এলাকায় ভয়ভীতি দেখিয়ে আমার পথসভা পণ্ড করে দিয়েছে।’

সুরঞ্জিত সরকার আরও বলেন, ‘ওই বাহিনীর সদস্যরা মাথায় হেলমেট পরে এবং হাতে লাঠিসোঁটা নিয়ে আমার পথসভা এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ে উপস্থিত হয়। এরপর আমাকে মারতে তেড়ে এলে আমি পাশের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নিয়ে নিজেকে রক্ষা করি। তা না হলেও হয়তো তারা আমাকে প্রাণে মেরে ফেলত। আমাকে মেরে ফেলারও হুমকি দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে আমার কর্মী-সমর্থকদেরও মারধরসহ মামলা দিয়ে গ্রেপ্তারের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। এই অবস্থায় আমার কর্মী-সমর্থকরা চরম আতঙ্কে আছে।’

এসব নিয়ে ১৮ নভেম্বর রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন সুরঞ্জিত সরকার। কিন্তু কোনো প্রতিকার মেলেনি। এই অবস্থায় ২৮ নভেম্বর নির্বাচন সুষ্ঠুবে সম্পন্ন হবে না বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাবলু হোসেনকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন